সেমিফাইনালে খেলবে বাংলাদেশ অবিশ্বাস্য মন্তব্য অ্যামব্রোসের!

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে তিন ম্যাচ জিতে সুপার এইট নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। সুপার এইটে ভালো খেললে বাংলাদেশের সেমিফাইনালে খেলার সম্ভাবনা খুবই উজ্জ্বল। এই লক্ষ্য নিয়েই অ্যান্টিগায় পৌঁছেছে বাংলাদেশ দল।

বাংলাদেশ গ্রুপ পর্বের শেষ দুই ম্যাচ খেলেছে সেন্ট ভিনসেন্টে। সেখান থেকে সুখস্মৃতি নিয়েই অ্যান্টিগায় পা রেখেছে শান্ত বাহিনী। এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ভালো সম্ভাবনা দেখছেন ক্যারিবীয় কিংবদন্তী কার্টলি অ্যামব্রোস। তিনি মনে করেন বাংলাদেশ সেমিফাইনালে জায়গা করে নিতে পারে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ বরাবরই পেসারদের স্বর্গরাজ্য। অ্যামব্রোস মনে করেন, সেখানে বাংলাদেশের পেসাররা দারুণ সুবিধা পাবেন। চলতি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পেসাররা দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করছেন। অ্যামব্রোসের ভবিষ্যদ্বাণী বাংলাদেশকে পারফর্ম করতে আরও উদ্বুদ্ধ করবে।

বাংলাদেশের গণমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, ‘যদিও আমি খুব বেশি ম্যাচ দেখিনি, আমি বলতে পারি বাংলাদেশের পেস বোলার বা দল হিসেবে সুপার এইটে ওয়েস্ট ইন্ডিজে ভালো করতে পারবে। কারণ পেস বোলারদের জন্য এটা দারুণ একটা জায়গা। এখানকার উইকেটগুলো বেশিরভাগই পেসারদের জন্য।’

বাংলাদেশের সেমিফাইনালে খেলার সম্ভাবনা নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘অবশ্যই, বাংলাদেশের সেমিফাইনালে যাওয়ার সুযোগ আছে। সেমিফাইনালে যাওয়ার জন্য সব দলেরই সমান সুযোগ রয়েছে। শুধু চারটি দল সেমিফাইনালে যাবে তবে সবারই সুযোগ আছে। কেউ যে কাউকে হারাতে পারে, এটাই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট।’

অ্যামব্রোস আগেই আশঙ্কা করেছিলেন এবারের বিশ্বকাপে ছোট দলগুলো অঘটন ঘটাতে পারে এবং তার ভবিষ্যদ্বাণী সত্যি হয়েছে দেখে দারুণ খুশি এই সাবেক ক্যারিবীয় পেসার। ছোট দলগুলোকে পারফর্ম করতে দেখে আনন্দ হচ্ছে তার। এ কারণেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জমে গেছে বলে ধারণা অ্যামব্রোসের।

তিনি বলেছেন, ‘আমি টুর্নামেন্টের শুরুর দিকে বা শুরুর আগেও বলেছিলাম যে বেশ কয়েকটি আপসেট দেখতে পারব। আমার কথাই সত্যি হলো। আমরা এমন টুর্নামেন্ট চাই না যেখানে বড় দলগুলো খেলবে আর জিতে যাবে। ছোট দল, মানে আমরা যাদের সহযোগী দেশ বলি, তারা যদি লড়াই করে তাহলে দেখতে ভালো লাগে। এটা একটা টুর্নামেন্টের জন্যও ভালো।’

এবার নিজেদের ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২০ ওভারের বিশ্বকাপে টানা দুই শিরোপা জয়ের রেকর্ড আছে শুধু তাদেরই। এখনও পর্যন্ত কোনো স্বাগতিক দল বিশ্বকাপ জিততে পারেনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সেই রেকর্ডে নিজেদের নাম লেখাবে বলে আশাবাদী অ্যামব্রোস।

তিনি বলেন, ‘আমি সবসময় ওয়েস্ট ইন্ডিজকে সমর্থন করি, যাই হোক না কেন। আমি আশা করছি ছেলেরা এবার ট্রফি উঁচিয়ে ধরবে। প্রথম দল হিসেবে আমরা তিনটা বিশ্বকাপ জিততে চাই। দ্বিতীয়ত, বিশ্বকাপ জিতলে আমরাই প্রথম দেশ হবো যারা নিজেদের মাটিতে ট্রফি জিতেছে। আমি নিশ্চিত ছেলেরা এগুলো জানে। দেখা যাক কি হয়।’

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top