এলপিএলে অভিষেক ম্যাচে ব্যর্থ মুস্তাফিজ ও হৃদয়!

লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগের (এলপিএল) পঞ্চম আসরের পর্দা উঠেছে। আজ (সোমবার) উদ্বোধনী ম্যাচে ডাম্বুলা সিক্সার্সের মুখোমুখি হয় ক্যান্ডি ফ্যালকনস। এ ম্যাচে ডাম্বুলা সিক্সার্সে ৬ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

এ ম্যাচে এলপিএলে অভিষেক হয়েছে মুস্তাফিজের। তবে অভিষেক ম্যাচে ডাম্বুলার জার্সিতে বল হাতে রাঙাতে পারেননি ফিজ। তাছাড়া ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন তাওহীদ হৃদয়ও।

পাল্লকেলেতে টস জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ক্যান্ডি দলপতি ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭৯ রান সংগ্রহ করে ডাম্বুলা। জবাবে ১৭.২ ওভার খেলে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ক্যান্ডি ফ্যালকনস।

এদিন ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই বিপদে পড়ে ডাম্বুলা। দলীয় ২৫ রানেই ৪ উইকেট হারায় দলটি। দ্বিতীয়বার মতো এলপিএলে অংশ নেওয়া তাওহীদ হৃদয় এদিন কেবল ১ রান করে আউট হয়ে যান।

টপ অর্ডারের ব্যর্থতার পর মার্ক চ্যাপম্যান ও চামিন্দুর ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় ডাম্বুলা। তাদের ১৫৪ রানের অপরাজিত জুটিতে ১৭৯ রানের লড়াকু পুঁজি পায় দলটি। চ্যাপম্যান ৬১ বলে ৯১ এবং চামিন্দু ৪২ বলে ৬২ রান করে অপরাজিত ছিলেন। ক্যান্ডির হয়ে দাসুন শানাকা ৪ ওভারে ২০ রান খরচায় ৩টি উইকেট শিকার করেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৬ বল ও ৬ উইকেট হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় ক্যান্ডি। দলের হয়ে দীনেশ চান্দিমাল ৬৫, কুশল মেন্ডিস ২৭, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ ৩৭ এবং শানাকা ৪৬ রান করেন।

এদিন ডাম্বুলার হয়ে ইনিংসের চতুর্থ ওভারে বোলিংয়ে এসে শুরুটা দারুণ করেন মুস্তাফিজ। প্রথম বলেই পাকিস্তানের মোহাম্মদ হ্যারিসের উইকেট তুলে নেন তিনি। এই ওভারে দেন মাত্র ৫ রান। তবে পরের ওভার থেকেই খরুচে বোলিং করেন ফিজ। দ্বিতীয় ওভারে ১৬ রানের পর তৃতীয় ওভারে ২৩ রানসহ ৩ ওভারে মোট ৪৪ রান দিয়েছেন তিনি।

এলপিলে এমন অভিষেক নিশ্চয়ই ভুলে যেতে চাইবেন মুস্তাফিজ। পরবর্তী ম্যাচে জাফনা কিংসের বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় নিয়েই মাঠে নামবেন কাটার মাস্টার।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top