টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য চমক দিয়ে ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। ইতিমধ্যে ঢাকায় এসে পৌছেছে জিম্বাবুয়ে দল। আর এই সিরিজ ঘিরে দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড(বিসিবি)। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঘোষিত তিন ম্যাচের স্কোয়াডে নেই মুস্তাফিজ। তার কারণ অবশ্য জানিয়েছেন নির্বাচক হান্নান

তিনি বলেন, ‘মুস্তাফিজ এখানে স্কোয়াডে নেই। মুস্তাফিজ আসলে লম্বা সময় খেলার মাঝে রয়েছে। বিপিএল খেলেছে, শ্রীলঙ্কা সিরিজে ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি খেলেছে তারপরে আইপিএল খেলতে গিয়েছে। লম্বা সময় আসলে সে খেলার মধ্যে রয়েছে। তার রিকোভারির ব্যাপার রয়েছে সেটা মানসিক এবং শারিরীক। তার সঙ্গে আমাদের নির্বাচকদের কথা হয়েছে, প্রধান নির্বাচকের কথা হয়েছে সে যেকোন একটা অংশে রিকোভারির জন্য সময়টা চাচ্ছিলো। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, প্রথম অংশে প্রথম তিনটা ম্যাচে তাকে অন্তর্ভূক্ত করিনি। তাকে হয়ত পরের দুইটা ম্যাচে অন্তর্ভূক্ত করতে পারি।’

মুস্তাফিজের পাশাপাশি প্রথম তিন ম্যাচে রাখা হয়নি সাকিবকে। সাকিব মুস্তাফিজ না থাকা ম্যাচে ১৮ মাস পর বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দলে ফিরেছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। সবশেষ ২০২২ সালের অক্টোবরে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের জার্সিতে ২০ ওভারের ম্যাচ খেলেছিলেন এই অলরাউন্ডার। এই সিরিজে ভালো করলেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের টিকেট পেয়ে যাবেন তিনি।

চোট কাটিয়ে সবশেষ বিপিএলে দারুণ পারফর্ম করার পর শ্রীলঙ্কা সিরিজে সুযোগ না পেলেও ডাকা হয়েছে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। সাইফউদ্দিনের মতো বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দলে ফিরেছেন আফিফ হোসেন ধ্রুব ও তানভির ইসলাম। ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সবশেষ টি-টোয়েন্টি খেলেছিলেন আফিফ। বাঁহাতি স্পিনার তানভির বাংলাদেশের হয়ে খেলেছেন সেই কিউই সফরেই। চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) রান করে দলে ফিরেছেন পারভেজ হোসেন ইমনও।

বাংলাদেশের হয়ে একটি মাত্র টি-টোয়েন্টি খেলেছেন বাঁহাতি এই ব্যাটার। ২০২২ সালে জিম্বাবুয়ে সফরে গিয়ে অভিষেক হওয়ার পর আর কখনও সুযোগ মেলেনি পারভেজের। এদিকে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দলে ডাক পেয়েছেন তানজিদ হাসান তামিম। তবে সবশেষ সিরিজ থেকে বাদ পড়েছেন এনামুল হক বিজয় ও তাইজুল ইসলাম। চোটের কারণে নেই সৌম্য সরকার ও আলিস আল ইসলাম।

আগামী ৩ মে শুরু হবে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হওয়া বাকি দুই ম্যাচ হবে ৫ ও ৭ মে। আর সিরিজের শেষ দুই টি-টোয়েন্টি হবে ১০ ও ১২ মে। ম্যাচ দুটি হবে ঢাকার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

প্রথম তিন টি-টোয়েন্টির জন্য বাংলাদেশের স্কোয়াড- নাজমুল হোসেন শান্ত, লিটন দাস, তানজিদ হাসান তামিম, তাওহীদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, জাকের আলী অনিক, শেখ মেহেদী, রিশাদ হোসেন, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, তানজিম হাসান সাকিব, পারভেজ হোসেন ইমন, তানভির ইসলাম, আফিফ হোসেন এবং সাইফউদ্দিন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top